মেহেদি ডাস্ট

By October 8, 2022Skincare
Mehedi Dust

 

মেহেদি কিংবা মেহেন্দি শব্দ গুলোর সাথে আমরা সবাই পরিচিত। জায়গাভেদে নাম ভিন্ন হলেও ব্যবহার একই, হয়তো সাজসজ্জার একাংশ হিসেবে কিংবা চিকিৎসার জন্য! খুব কম মেয়েই হবে যে মেহেদি লাগাতে পছন্দ করে না কিংবা কখনো লাগায় নি!

ভারত উপমহাদেশের জন্য তো এটি প্রায় ট্রেডিশন হয়ে গিয়েছে! বিয়েতে মেহেদি না লাগালে মনে হয় বউ এর সাজই পরিপূর্ণ হলো না! 

 

উপকারঃ ধু রাঙা রঙে রাঙ্গানোই মেহেদির একমাত্র কাজ না। আমাদের ত্বক আর চুল ঠিক রাখতে মেহেদিতে থাকা উপাদানগুলো বেশ কাজ করে। চুলের সর্বোপরি স্বাস্থ্য সুরক্ষায় মেহেদির ভূমিকা অনস্বীকার্য। কন্ডিশনিং, ড্যামেজ রিপেয়ার, পিএইচ লেভেল ঠিক রাখা সহ অসংখ্য উপকার করে এই এক মেহেদি। 

 

– মেহেদির শীতলকারক এবং জীবাণুনাশক উপাদান মাথার ত্বকের স্বাস্থ্য ভালো রাখতে সহায়তা করে। মাথার তালুতে হওয়া চুলকনি ও খুশকির সমস্যা প্রশমিত করে। 

– মেহেদি মাথার তালুর অতিরিক্ত তেল এবং ধুলো-ময়লা দূর করে। তরল জাতীয় উপকরণ যেমন ডিমের সাথে যদি মেহেদি মিশিয়ে দেয়া হয় তাহলে এটা চুলে কন্ডিশনারের কাজ করে। মেহেদি চুলকে মসৃণ করে এতে চুলে সিল্কি হয়। এছাড়া নিয়মিত মেহেদি ব্যবহারে চুলের বহিরাবরণ অক্ষত থাকে যা চুলের আদ্রততা ধরে রাখতে সহায়ক।

– মেহেদিতে অধিক মাত্রায় পুষ্টি উপাদান থাকায় চুলে হওয়া ড্যামেজ সারিয়ে তোলে। মেহেদি চুলের শক্তি এবং স্থিতিস্থাপকতা বাড়ায় ফলে চুল সহসাই ভেঙে যায় না বা চুল ফাটে না। 

– মেহেদি একটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ উপাদান চুলের অতিরিক্ত তৈলাক্ততা দূর করার জন্য। এটি সেবাসিয়াস গ্রন্থির অতিরিক্ত তেল উৎপাদন প্রক্রিয়া মন্থর করে। এটি স্ক্যাল্পের পিএইচ লেভেল পুনরুদ্ধার করে এবং চুলের গোড়াকে মজবুত করে। 

– কেশকূপের স্বাস্থ্যর উন্নতি ঘটিয়ে মেহেদি চুল ঝরে যাওয়া কমায় এবং চুলের বৃদ্ধি ঘটায়। 

Mehedi Dust

মেহেদী ডাস্টঃ অর্গানিক মেহেদির বিশ্বস্ত জায়গা হেয়ার ফুড! হেয়ার ফুডের মেহেদি ডাস্টে নেই কোনো প্রিজারভেটিভ কিংবা কোনো রঙ বর্ধনশীল ক্যামিকেল! একেবারেই প্রাকৃতিক গুণাগুণ সমৃদ্ধ এই মেহেদি ডাস্ট বাচ্চা থেকে বুড়ো, মাথায় কিংবা হাতে ব্যবহার করতে পারবেন একদম নিশ্চিন্তে ইনশা’আল্লাহ।

Mehedi Dust

কিভাবে ব্যবহার করবেনঃ গাছের কাঁচা মেহেদীও সহজলভ্য না। আর গুঁড়ো মেহেদী গুলে নিয়ে হাতে দিলেও কাঁচা পাতার মতো গাঢ় রঙ হয় না আবার লম্বা সময় হাতে থাকেও না। তবে বিশেষ কিছু নিয়ম মেনে গুঁড়ো মেহেদী ব্যবহার করলে গাঢ় রঙ হবে। 

 

এই জন্য যা লাগবেঃ 

মেহেদী গুঁড়ো – ১০ টেবিল চামচ 

চিনি – ২ টেবিল চামচ 

এসেনশিয়াল অয়েল – ১ টেবিল চামচ 

চা পাতা জ্বাল করে নেয়া পানি – প্রয়োজন মতো।  

 

একটি হাঁড়িতে অল্প পানি নিয়ে তাতে খানিকটা চাপাতা দিয়ে ফুটিয়ে নিন লিকার গাঢ় হওয়া পর্যন্ত। হয়ে যাওয়াত পর নামিয়ে ঠান্ডা করে নিন। 

 

এবার একটি বাটিতে মেহেদী গুঁড়ো নিয়ে নিন। এরপর একে একে চিনি, এসেনশিয়াল অয়েল (ল্যাভেন্ডার/টি ট্রি অয়েল/ ইউক্যালিপটাস অয়েল বা হেয়ারফুডের  এসেনশিয়াল অয়েল) মেহেদীর সাথে মিশিয়ে নিন। এবার অল্প অল্প করে চা জ্বাল করা পানি মিশিয়ে নিন সঠিক ঘনত্বে আসা পর্যন্ত। ভালো করে মিশ্রণটি নেড়ে নেড়ে মেশাতে হবে নাহয় দলা থেকে যেতে পারে।

 

এবার একটু মোটা রেক্সিন জাতীয় পলিথিন নিয়ে মেহেদীর সাথে চেপে চেপে ঢেকে দিন। একটু বড় টুকরোর পলিথিন নিতে হবে যাতে মেহেদী ঢাকার পর বাড়তি অংশ দিয়ে যেন বাটিও ঢেকে রাখা যায়। এর উপর ভারি কিছু দিয়ে চাপা দিয়ে রাখতে পারেন। 

 

২৪ ঘন্টা এভাবে রাখার পর মেহেদীর উপর থেকে পলিথিন তুলে নিয়ে আবারো খানিকক্ষণ ভালো করে নেড়ে নিন। ব্যাস মেহেদী তৈরি হয়ে গেল ব্যবহার এর জন্য। 

এই পেস্টটি কোণ বানিয়ে তাতেও ভরে ব্যবহার করা যাবে আবার এমনিও নকশা করা যাবে। 

 

যারা বলতেন হেয়ার ফুডের মেহেদী গুঁড়ো হাতে দিলে রঙ হয় না তারা এই নিয়মে ব্যবহার করে দেখুন। ইন শা আল্লাহ গাঢ় রঙ পাবেন। 

 

মেহেদী ডাস্টের গুনাগুণ ও ব্যবহারবিধি:

 

১। মেহেদিতে রয়েছে এন্টিফাঙ্গাল, এন্টি-ইনফ্লেমেটরী, কুলিং ও হিলিং, এন্টিইরিটেন্ট ও সিডেটিভ গুণাগুণ। অত্যন্ত উপকারি ভেষজ মেহেদি পাতা ও ফুল হতে আহরিত তেল চামড়ার অনেক ধরণের ঔষধ তৈরির গুরুত্বপূর্ণ উপাদান। চামড়ায় ক্ষত, পোড়া ও চামড়ার ফ্যাকাসে হলুদ দাগ চিকিৎসায় অত্যন্ত কার্যকরী ঔষধ হচ্ছে মেহেদি। স্কেবিস, চর্মের চুলকানি ও নখ ফাটার চিকিৎসায় মেহেদির পেস্ট বেশ উপকারী্।

২। চুল পড়া রোধে মেহেদি বেশ উপকারী। চুলের পরিমাণ অনুপাতে মেহেদি গুঁড়ো আধঘণ্টা পানিতে ভিজিয়ে রেখে পনের দিন অন্তর লাগাতে হবে। ভালো ফলাফলের জন্য hair food এর Hair Pack সমপরিমাণে মিশিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে, এতে করে চুলের জন্য উপকারী সকলপ্রকার প্রাকৃতিক উপাদান একইসাথে পাওয়া যাবে। চল্লিশ মিনিট অপেক্ষা করে মাথা ধুয়ে ফেলুন।

৩। চুল এবং দাড়িতে রঙ করার জন্য আধঘণ্টা পানিতে ভিজিয়ে পেস্ট তৈরি করে লাগাতে হবে। ভালো রঙ পাবার জন্য নিদেনপক্ষে দেড় ঘণ্টা রাখতে হবে।

৪। খুশকি দূর করতে লেবু এবং টক দই মিশিয়ে লাগানো যেতে পারে।

পরিমানঃ ১০০ গ্রাম ।

মূল্য ৳ 160

Leave a Reply

Hair Food