চুল পড়া কমিয়ে চুল গজাতে হেয়ার প্যাক

By September 14, 2019Haircare

নিজেকে ভালোবাসা, সুন্দর রাখা মানুষের সহজাত প্রবৃত্তি। আর তাই তো ছেলে মেয়ে নির্বিশেষে নিজের যত্ন নিতে পছন্দ করে সবাই। আয়নায় নিজের চেহারা দেখে পুলকিত হয়। কিন্তু অনেক সময়ই এই পুলকিত চেহারা মিইয়ে একরাশ মন খারাপ করা কালো মেঘের আড়ালে। কারণ হিসেবে হয়ত দেখা যায় তার এতদিনের এত সাধের দীঘল কালো মেঘবরণ কেশ তার থেকে বিদেয় নিয়ে রেখে গিয়েছে ফাঁকা চাঁদি।

আর এতেই ঘটে বিপত্তি। চিন্তিত, বিষণ্ণ আর হন্যে হয়ে সমাধান খুঁজতে থাকে, কী করলে আগের মত মাথাভর্তি চুল ফিরে আসবে। যার থেকে যা শোনে, যা দেখে তাই প্রয়োগ করে যদি ফিরে পায় বহু সাধনার হারিয়ে যাওয়া কেশমালা। কিন্তু কোথাকার কী? সমাধান যেন হয় না, বরং মাথার তালু আরো ফাঁকা হতে থাকে।

আগেকার যুগের মানুষ বর্তমান সময়ের মত রাসায়নিক উপাদান যুক্ত প্রসাধনী ব্যবহার করত না ত্বক কিংবা চুলের যত্নে। প্রকৃতির মাঝে থাকা নানান উপাদান বেছে নিত আর সেজন্যই হয়তো তারা বর্তমান সময়ের মত এত সমস্যায় পড়ত না। তাদের চুলের যত্নে ব্যবহৃত জিনিসগুলোর মধ্যে থাকত – আমলকি, বহেরা, হরতকি, মেথি, রিঠা, শিকাকাই ইত্যাদি ইত্যাদি। এসবের সাথে যোগ করত টক দই, ডিম কিংবা মধু। আর এতেই যাদুকরী ফল পেত, মাথা ফাঁকা হয়ে গড়ের মাঠ তো হতই না বরং ঘন অরণ্য স্বরূপ কৃষ্ণবরণ কেশ পেত।

বর্তমানে এসব উপাদান দুর্লভ হলেও পাওয়া যায় না এমন নয়। আর এই দুর্লভ বস্তুগুলোকে হাতের নাগালে নিয়ে আসার কষ্ট সাধ্য কাজ করে যাচ্ছে হেয়ার ফুড। সব উপাদানের সঠিক অনুপাতে হেয়ার ফুড বানিয়েছে এই হেয়ার প্যাক, যা চুল পড়া কমিয়ে চুল গজাতে সহায়ক। আর এই হেয়ার প্যাকের পাশাপাশি যদি এসেনশিয়াল অয়েল রাখা যায় তাহলে তো সোনায় সোহাগা। এই দুইয়ের মেলবন্ধন যেন চুলের যত্নে হয়ে ওঠে অতুলনীয় এক রক্ষাকবচ।

Hair Food